শাহরুখ পুত্রের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ

বিনোদন

স্বদেশবাণী ডেস্ক: জামিন পেলেন না শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ান খান। তবে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)-র আইনজীবীর দাবি মতো আরিয়ান-সহ বাকি গ্রেফতারকৃতদের তাদের হেফাজতে রাখার আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত।

বিচারপতি দাবি করেন, এনসিবি তাদের হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য যথেষ্ট সময় তদন্তকারীরা পেয়েছেন। এর পরেই আরিয়ানদের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারপতি। সঙ্গে সঙ্গে আরিয়ানদের অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন করেন শাহরুখ নিযুক্ত আইনজীবী। সেই অন্তর্বর্তী জামিনের শুনানি হবে শুক্রবার সকাল ১১টায়।

বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৭ অক্টোবর পর্যন্ত আরিয়ানকে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। চার দিন এই কেন্দ্রীয় তদন্তকারীর সংস্থার রুদ্ধদ্বার কক্ষে কাটিয়েছেন আরিয়ান। চলেছে জিজ্ঞাসাবাদ। এনসিবি সূত্রে জানা গিয়েছে, জেরার সময় সহযোগিতা করেছেন শাহরুখ-পুত্র। কিন্তু আপাতত বহাল থাকবে তার বন্দিদশা।

তদন্তের আরও গভীরে যাওয়ার জন্য আরিয়ান এবং সঙ্গীদের হেফাজতের রাখা প্রয়োজনীয় বলে যুক্তি দেওয়া হয় এনসিবি-র তরফে। সম্প্রতি মাদকতরীর পার্টিতে উপস্থিত অচিত কুমারকে আটক করেছে এনসিবি। ৯ অক্টোবর পর্যন্ত তাদের হেফাজতে থাকবেন অচিত।

শাহরুখ-পুত্রের আইনজীবী জানান, আরবাজ এবং অচিতের কাছ থেকে খুব অল্প পরিমান মাদক উদ্ধার হয়েছে। মানশিন্ডে জানিয়েছেন, তাদের সঙ্গে আরিয়ানের পরিচয় আছে। কিন্তু সেই পার্টিতে আরিয়ান কারও থেকে মাদক সংগ্রহ করেননি। শাহরুখ-পুত্রের আইনজীবীর মতে, চার দিন আরিয়ানকে হেফাজতে রাখার পরেও আসল অপরাধীকে এখনও পর্যন্ত খুঁজে বার করতে পারেনি এনসিবি। আরিয়ান নাকি পার্টির জাঁকজমক আরও বাড়িয়ে দিতেই সেখানে গিয়েছিলেন।

গত শনিবার মুম্বাই থেকে গোয়ামুখী এক প্রমোদতরীর পার্টি থেকে আটক করা হয় আরিয়ান-সহ আরও কয়েকজনকে। দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার হন শাহরুখ-পুত্র। আরিয়ানের দুই সঙ্গী মুনমুন ধমেচা এবং আরবাজ শেঠ মার্চেন্টকেও গ্রেফতার করে এনসিবি।

শাহরুখ-পুত্র জানিয়েছেন, অতীতে কখনও তিনি নেশা করেননি। অনুশোচনা প্রকাশ করে জানিয়েছেন, ভবিষ্যতেও এমন কোনও কাজ আর তিনি করবেন না। কিন্তু জেরা করেই থেমে যাননি এনসিবি-র কর্মকর্তারা। তদন্তের গভীরে গিয়ে জানা গিয়েছে, বিগত চার বছর ধরে মাদক নিতেন আরিয়ান। কিন্তু স্বস্তি পেলেন না শাহরুখ পুত্র।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *