পাকিস্তানে তোলপাড় সৃষ্টিকারী সেই ধর্ষণের ঘটনায় দুজনের ফাঁসি

আন্তর্জাতিক

স্বদেশবাণী ডেস্ক: সড়কে সন্তানের সামনে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত এক ফরাসি নারীকে ধর্ষণের চাঞ্চল্যকর ঘটনায় দুই ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছেন দেশটির আদালত।  দণ্ডিতরা হলেন- আবিদ মালহি এবং শাফকাত আলি বাগগা।  খবর বিবিসির।

ওই নারী ও তার দুই সন্তান একটি সড়কে নিজেদের গাড়িতে করে যাচ্ছিলেন।  কিন্তু লাহোরের কাছে একটি সড়কে তাদের গাড়ির তেল ফুরিয়ে যায়।  এ সময় ঘটনাস্থলে হাজির হন ওই দু’জন।  তারা ওই নারীর গাড়ির দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করেন।  কেড়ে নেয় টাকাপয়সা ও ব্যবহার্য্য সব।  এরপর সন্তানের সামনে তাকে ধর্ষণ করেন।  এ ঘটনা জানাজানি হলে পাকিস্তানজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এর প্রেক্ষিতে তদন্ত করা হয়।  কেন ওই নারী গভীর রাতে এভাবে বেরিয়েছিলেন তা জানতে চায় পুলিশ।  এমন প্রশ্ন করার কারণে জনক্ষোভ আরও তীব্র হয়।  শনিবার লাহোরের বিশেষ আদালত আবিদ এবং শাফকাত আলীকে গণধর্ষণ, অপহরণ, ডাকাতি ও সন্ত্রাসের অভিযোগে অভিযুক্ত করে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। আসামীদের আইনজীবী বলেছেন, তারা এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৯ই সেপ্টেম্বর ওই নারী লাহোর থেকে গভীর রাতে বেরিয়েছিলেন।  তার সঙ্গে ছিল দুটি সন্তান।  হঠাৎ তার গাড়ির তেল ফুরিয়ে যায়। তিনি গুজরানওয়ালায় আত্মীয়দের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন।  তারা তাকে মোটরওয়ে ইমার্জেন্সি নম্বরে ফোন করার পরামর্শ দেন।  ওই নারীর একজন আত্মীয় পুলিশের কাছে অভিযোগে বলেছেন, ২০ থেকে ৩০ বছরের মধ্যবর্তী বয়সী দু’জন যুবক গাড়ির দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে। নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার কেড়ে নেয়। এরপর পাশেই এক ক্ষেতের ভিতর নিয়ে তার দুই সন্তানের সামনে তাকে ধর্ষণ করে এবং পালিয়ে যায়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *