ফের দুঃখ প্রকাশ করে যা বললেন আশরাফ গনি

আন্তর্জাতিক

স্বদেশ বাণী ডেস্ক: আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি আবারও আফগান মানুষের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। বুধবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, যেভাবে ঘটনার সমাপ্তি ঘটেছে তার জন্য আমি অনুতপ্ত।

‘তালেবান যোদ্ধারা রাজধানী কাবুলে প্রবেশ করছে’ এমন খবর প্রকাশ হওয়ার পর গত ১৫ আগস্ট আশরাফ গনি আফগানিস্তান ছেড়ে পালিয়ে যান। প্রথমে খবর বের হয় তিনি তাজিকিস্তান পালিয়ে গেছেন। পরবর্তীতে জানা যায়, তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতে (দুবাই) আশ্রয় নিয়েছেন।

আফগানিস্তানের সাধারণ মানুষ তালেবানের ক্ষমতা দখলের সশস্ত্র অভিযানের মুখে দেশ ছেড়ে পালানোর জন্য আশরাফ গনিকে ‘কাপুরুষ’হিসেবে অভিহিত করেন। দেশত্যাগ করার আশরাফ গনি চারটি গাড়ি ও একটি হেলিকপ্টার ভরে নগদ অর্থ নিয়ে গেছেন বলেও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়।

তবে পালিয়ে যাওয়ার ৪ দিন পর এক ভিডিও বার্তায় আশরাফ গনি বলেন, আমি সংযুক্ত আরব আমিরাতে আছি। তালেবানের কাবুল দখলের মুখে ব্যাপক রক্তপাত এড়াতে দেশ ছেড়েছি। বিপুল পরিমাণ নগদ অর্থ নিয়ে দেশ ছাড়ার অভিযোগ অস্বীকার করে আশরাফ গনি বলেন, নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের তাড়া থাকায় সম্পত্তি ও গোপনীয় নথি রেখেই দ্রুত দেশ ছাড়তে হয়েছে।

সর্বশেষ বুধবার অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে সাবেক এই আফগান প্রেসিডেন্ট দেশ ছেড়ে যাওয়ার ঘটনার বিষয়ে বলেন, কাবুল ছেড়ে যাওয়া ছিল আমার জীবনের সব থেকে কঠিন সিদ্ধান্ত। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি, বন্দুকের গর্জন বন্ধ এবং ৬০ লাখ মানুষকে রক্ষার এটি ছিল একমাত্র উপায়।

আশরাফ গনি বলেন, জীবনের ২০ বছর আমি আফগান মানুষের জন্য গণতন্ত্র, সমৃদ্ধ এবং সার্বভৌম দেশ গঠনে নিজেকে উৎসর্গ করেছি। আফগান জনগণকে ছেড়ে যাওয়ার ইচ্ছা আমার ছিল না।

এই বিবৃতিতে আশরাফ গনি আরও বলেন, রাজপথে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের ঝুঁকি এড়াতে তিনি প্রেসিডেন্ট প্যালেস ত্যাগ করেন। এছাড়া কোষাগার থেকে লাখ লাখ অর্থ নিয়ে যাওয়ার দাবি পুনরায় অস্বীকার করেন।

আশরাফ গনি বলেন, ব্যক্তি জীবনে অর্থ খরচে আমি ও আমার স্ত্রী নীতিপরায়ণ। আমার সকল সম্পদের কথা জন সম্মুখে ঘোষণা দিয়েছি।আমার স্ত্রীর পরিবারের সবকিছুও প্রকাশ করেছি এবং তার দেশ লেবাননে সব কিছু লিপিবদ্ধ আছে। তার বিরুদ্ধে তদন্তকে স্বাগত জানান উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে সরকারি আর্থিক অনুসন্ধান নিরীক্ষাকে আমি স্বাগত জানাই।

আশরাফ গনি কাবুল ছেড়ে পালিয়ে যাবার পর তালেবান যোদ্ধারা প্রেসিডেন্ট প্যালেস দখল করেন। গতকাল তালেবান অন্তর্বতীকালীন মন্ত্রীসভা গঠন করেছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *