যে কারণে হাক্কানি নেটওয়ার্কের সঙ্গে বিরোধ মোল্লা বারাদারের

আন্তর্জাতিক

স্বদেশ বাণী ডেস্ক:  তালেবানের অস্থায়ী সরকার গঠন নিয়ে হাক্কানি নেটওয়ার্কের এক গুরুত্বপূর্ণ নেতার সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়েছেন তালেবানের সহপ্রতিষ্ঠাতা মোল্লা আব্দুল গনি বারাদার। গোষ্ঠীটির সরকার গঠনের পর থেকে বিরোধের বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়। যদিও তালেবানের পক্ষ থেকে বিরোধের বিষয়টি অস্বীকার করা হচ্ছে।

তালেবানের মুখপাত্র সুহেল শাহিন টুইট বার্তায় নিজেদের মধ্যে বিরোধের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

বুধবার বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাবুলের প্রেসিডেন্ট প্যালেসে বারাদার ও হাক্কানি নেটওয়ার্কের অন্যতম নেতা ও খলিল হাক্কানির মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। তাদের অনুসারীরাও পরষ্পরের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে।

এই ঝামেলার পরই বারাদার কাবুল ছেড়ে কান্দাহার চলে গিয়েছিলেন বলে বিবিসিকে তালেবানের এক সূত্র জানিয়েছে।ওই সূত্র আরও জানায়, তালেবানের উপ প্রধানমন্ত্রী বারাদার অন্তর্বর্তীকালীন মন্ত্রিসভার গঠন কাঠামো নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিলেন বলে এই বাকবিতণ্ডার শুরু হয়।

তালেবানের এই সাফল্য তার মতো কূটনীতিকদের জন্যই এসেছে বলে দাবি করেছেন বারাদার। অন্যদিকে হাক্কানির ধারণা যুদ্ধের মাধ্যমেই কাবুল জয় সম্ভব হয়েছে।

প্রথম তালেবান নেতা হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ হয়েছে  বারাদারের। ২০২০ সালে তখনকার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তার টেলিফোনে কথা হয়। তার আগে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহার চুক্তিতে তালেবানের পক্ষে তিনি স্বাক্ষর করেন।

সেই সময় আফগান বাহিনী ও তাদের পশ্চিমা মিত্রদের বিরুদ্ধে শক্তিশালী হাক্কানি নেটওয়ার্ক সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে ভয়াবহ কিছু হামলার সঙ্গে জড়িত ছিল। এই গ্রুপকে যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসী সংগঠন বলে তালিকাভুক্ত করেছে।

তালেবানের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন এই দলের নেতা সিরাজুদ্দিন হাক্কানি।

গুজব রয়েছে যে, গত সপ্তাহের শেষের দিকে বড় ধরনের বিরোধের তৈরি হয়েছিল, তখন বারাদার- তালেবানের সবচেয়ে বেশি পরিচিত ব্যক্তিদের একজন আড়ালে চলে যান। সামাজিক মাধ্যমে ধারণা করা হচ্ছিল, তিনি হয়তো মারা গেছেন।

তালেবান সূত্র বিবিসিকে জানিয়েছে, বিতণ্ডার পর বারাদার কাবুল ত্যাগ করেছেন এবং কান্দাহারে চলে গেছেন।

সোমবার প্রকাশ হওয়া বারাদারের একটি কথিত অডিও বার্তায় তালেবানের সহপ্রতিষ্ঠাতাকে বলতে শোনা যায় যে, তিনি একটি সফরে রয়েছেন।

‘আমি এই মুহূর্তে যেখানেই থাকি না কেন, আমরা সকলে ভালো আছি,’ তিনি বলছেন।

বেশ কয়েকটি তালেবান ওয়েবসাইটে পোস্ট করা এই অডিও বার্তা যাচাই করে দেখতে পারেনি বিবিসি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *