কুড়িগ্রামে কুরিয়ারে বুকিং দিতে আসা কার্টনে ফেন্সিডিল

সারাদেশ লীড

স্বদেশ বাণী ডেস্ক: কুড়িগ্রামে অভিনব কায়দায় মাদক পাচার করতে কুরিয়ার সার্ভিসের কার্টনে ফেনসিডিল পাচারের চেষ্টা করা হয়েছে। পরে এতে ব্যর্থ হলে জেলার সব কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করা হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে পুলিশ ও গোয়েন্দা নজরদারিও।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কুড়িগ্রাম শহরের একটি কুরিয়ার সার্ভিসের অফিসে বুকিং দিতে আসা একটি কার্টন থেকে দেড়শ বোতল ফেনসিডিলসহ ভারতীয় প্রসাধনী জব্দ করেছে সদর থানা পুলিশ। শনিবার রাতে শহরের কলেজ মোড় এলাকায় অবস্থিত ‘সওদাগর এক্সপ্রেস লিমিটেড’ নামক কুরিয়ার সার্ভিসের অফিস থেকে এসব মালামাল জব্দ করা হয়।

সওদাগর কুরিয়ার সার্ভিসের কুড়িগ্রাম অফিসের ম্যানেজার রবিউল ইসলাম জানান, শনিবার সন্ধ্যার পর অজ্ঞাত এক ব্যক্তি সাদা পলিব্যাগে মোড়ানো একটি কার্টন নিয়ে এসে তা ঢাকায় পাঠানোর জন্য বুকিং করতে চান। কার্টনের ভেতর কী মালামাল আছে তা খুলে দেখতে চাইলে ওই ব্যক্তি কৌশলে ফোনে কথা বলতে বলতে নিমিষেই ‘উধাও’ হয়ে যায়। এতে আরও সন্দেহ বেড়ে যায়। আর কার্টন মালিক ফেরত না আসায় আমরা বিপাকে পড়ি।

কিছু সময় অপেক্ষা করার পর রাতেই কার্টন খুলে ভেতরে ফেনসিডিলসহ ভারতীয় প্রসাধনী সামগ্রী দেখতে পেয়ে প্রথমে হেড অফিসে অবহিত করি। পরে কুড়িগ্রাম সদর থানা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে মালামাল জব্দ করে থানায় নিয়ে যায়। কার্টন নিয়ে আসা ব্যক্তিকে চিনতে পারেননি বলেও জানান তিনি।

কুড়িগ্রাম সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খান মো. শাহরিয়ার জানান, জব্দ মালামালের মধ্যে ছিল ১৪৯ বোতল ফেনসিডিল, তিন শতাধিক খালি মোড়কসহ ৮৭ পিচ স্কিন সাইন নামে ভারতীয় প্রসাধনী এবং গোডরেজ বেবি সাবান তিন পিচ। তবে প্রসাধনীগুলো মূলত বিভ্রান্ত করার জন্য ফেনসিডিলের বোতলের ওপর ঢেকে দেওয়া ছিল। উদ্ধারকৃত মালামালের আনুমানিক মূল্য প্রায় অর্ধ লাখ টাকারও বেশি বলে জানান তিনি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জিয়াউর রহমান বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে জড়িত ব্যক্তিকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে। সূত্র: যুগান্তর।

স্ব.বা/শা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *