মোংলা বন্দরে আটকে আছে ৮৬ কন্টেইনার পণ্য

জাতীয়

স্বদেশবাণী ডেস্ক: করোনায় ভারতে রপ্তানি আদেশ বন্ধ থাকায় মোংলা বন্দরে কাঁচামাল পণ্য নিয়ে ৮৬টি কন্টেইনার আটকে আছে। গত সপ্তাহে আসা এসব কন্টেইনারে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের কাঁচামাল রয়েছে। মোংলা ইপিজেডের ভিআইপি নামক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান এই কাঁচামাল আমদানি করে।

ভিআইপি’র বাংলাদেশের মানব সম্পদ বিভাগের ব্যবস্থাপক মোঃ মিজানুর রহমান খান বুধবার (২ জুন) এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সময়মত এসব কন্টেইনারে আটকে থাকা পণ্য ছাড়িয়ে না নিলে তাদের জরিমানা গুণতে হবে। বন্দর কর্তৃপক্ষ থেকে আগামী রোববারের (৬ জুন) মধ্যে এসব পণ্য সরিয়ে নেওয়ার আদেশ রয়েছেও বলে জানান তিনি।

করোনার ভয়াবহ সংকটে ভারতে রপ্তানি আদেশ বন্ধ থাকায় সে দেশে পণ্য রপ্তানি করতে পারছে না মোংলা ইপিজেডের ভারতীয় ফ্যাক্টরী ‘ভিআইপি’ কর্তৃপক্ষ। এরই মধ্যে পণ্য রপ্তানি ব্যাহত হওয়ায় ১৫ দিনের জন্য তাদের ফ্যাক্টরী সাময়িক বন্ধও করা হয়েছে বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপক মোঃ মিজানুর রহমান খান।

পণ্য রপ্তানি বন্ধ থাকায় ভারত থেকে কন্টেইনারে আসা এসব কাঁচামাল মোংলা বন্দরের জেটিতে পড়ে আছে। পণ্য যখন উৎপাদন করা যাবে না, এসব কাঁচামাল দিয়ে কী হবে বলে জানান মিজানুর রহমান। ভারতে পণ্য রপ্তানি আদেশ শিথিল হলে এসব পণ্য ছাড় করা হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের সহকারী ট্রাফিক ম্যানেজার (কন্টেইনার) মোঃ শামিম হাওলাদার বলেন, বন্দরে আসা ইপিজেডের ভিআইপি ফ্যাক্টরীর ৮৬টি কন্টেইনারের মধ্যে ২০ ফিট কন্টেইনার প্রতি প্রথম ১০ দিন তিন ডলার এবং ১০ দিনের পর অবশিষ্ট দিনগুলোর জন্য আট ডলার ট্রারিফ চার্জ (বন্দর মাশুল) দিতে হবে। আর ৪০ ফিট কন্টেইনার প্রতি দিতে হবে প্রথম ১০ দিন আট ডলার এবং অবশিষ্ট দিনের জন্য ১৬ ডলার ট্রারিফ চার্জ।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *