বাঘায় আত্বহত্যার পর সুদে দেয়া টাকা উদ্ধার

রাজশাহী লীড

বাঘা প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘায় সুদে দেওয়া টাকা ফেরত না পেয়ে আফাজ উদ্দিন (৬০) নামের এক বৃদ্ধ আতœহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে উপজেলার ভানুকর মন্ডলপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। বুধবার (০২-০১-১৯) পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। আগের দিন মঙ্গলবার সন্ধ্যার আগে নিজ বাড়ির উঠানের পেয়ারা গাছে গলায় রশি দিয়ে আতœহত্যা করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বছর খানেক আগে নিজ গ্রামের গ্রাম ডাক্তার আবদুল গাজির ওষুধের ফার্মেসীতে বসে স্থানীয় নিয়াজ উদ্দিন, ইয়াছিন আলী, পাতান আলীর স্বাক্ষরিত ১৫০ টাকার স্ট্যাম্পের মাধ্যমে চারঘাট উপজেলার নজরুল ইসলাম কশাইকে সুদে ৩ লক্ষ টাকা দেয়। বিনিময়ে আফাজকে কোন সপ্তাহে এক হাজার টাকা, আবার কোন সপ্তাহে এক হাজার ৫০০ টাকা করে দিতো কশাই নজরুল ইসলাম। তিন/চার মাস থেকে লাভের টাকা আর দিতে পারেনি নজরুল কশাই । এছাড়া মূল ৩ লক্ষ টাকাও ফেরত দেইনি সে। তবে আতœহত্যার পর আফাজ উদ্দিনের ছেলে ফজলু হক ও জামাই আলতাফ হোসেন ডাক্তার আবদুল গাজির মাধ্যমে নজরুল কশাইকে চাপ প্রয়োগ করে। এক পর্যায়ে তাদের ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকার অনুকুলে ব্যাংকের চেক প্রদান করেন । তবে নজরৃল কসাইকে না পেয়ে এই টাকার চেক দিয়েছেন ডাক্তার আবদুল গাজি।
এ বিষয়ে ডাঃ গাজি বলেন, আমার সাক্ষাতে টাকা দেওয়ার কারণে তার ছেলে-জামাই লাশ উপরে রেখে চাপ প্রয়োগ করে। ঝামেলা এড়াতে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকার চেক দিতে বাধ্য হয়েছি।

বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহসীন আলী বলেন, রহস্যজনক মৃত্যুর সন্দেহে ইউডি মামলা দায়ের করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Spread the love
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.