মনোনয়ন না পেয়ে মানববন্ধন করিয়ে তোপের মুখে আড়ানীর মেয়র মুক্তার আলী

রাজশাহী

স্টাফ রিপোর্টার: ডজন অভিযোগের বোঝা মাথায় নিয়ে নিজের ক্ষমতাকে ধরে রাখতে এলাকা বাসিদের দিয়ে মানব বন্ধন করিয়ে তোপের মুখে পড়েছেন রাজশাহীর আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলী।

রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার ব্যবসার প্রধান স্থল হিসাবে ধরাহয় আড়ানী পৌরসভাকে। আয়তনে ছোট হলেও এখান কার পৌরসভাকে অনেক গুরুত্ব দিয়ে দেখেন এই বাঘা উপজেলার মানুষ। গত কয়েক দিন ধরে আড়ানী পৌরসভার কে হবেন নৌকার মাঝি এই নিয়ে তোড় জোড় চললেও শেষে এই অঞ্চলের প্রানপ্রিয় মানুষ শিক্ষিত ব্যক্তি শহীদুজ্জামান শহীদ কে আড়ানী পৌরসভার মেয়রের মনোনয়ন দেওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছে আড়ানী অঞ্চলের মানুষ।

অপর দিকে এই মনোনয়ন বাতিলের দাবি এনে ২০ডিসেম্বর আড়ানীতে বিক্ষোভ করেছে মুক্তার সমর্থক এক অংশের মানুষ। এই নিয়ে গত দুইদিন ধরে চলছে বিভিন্ন মহলে ঝড়। তবে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে কিভাবে প্রকাশ্যে বিক্ষোভ করছে মুক্তার আলী সেটি নিয়ে চলছে রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের মধ্যে ক্ষোভ। রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের একজন সিনিয়র নেতা বলেন দলীয় মনোনয়নের বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজেই দেখভাল করেন সেখানে ক্ষোভের কিছু নেই।

তিনি বলেন দলের মনোনয়ন না পেয়ে এমন বিক্ষোভ অবশ্যই ঠিক নয়। তিনি চারঘাট বাঘা অঞ্চলের সংসদ পরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আলহাজ শাহরিয়ার আলমের কথা উল্লেখ করে বলেন তিনিই এর সমাধান করবেন। আড়ানী পৌরসভার রাস্তা ঘাট মেরামত সহ আড়ানী পৌরসভার নিজস্ব জায়গা ক্রয় নিয়েও অভিযোগ রয়েছে এই মুক্তার আলীর বিরুদ্ধে।

অভিযোগ রয়েছে মুক্তার আলী নিজেই সকল বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে থাকেন, যা নিয়ে মাঝে মধ্যেই বিভিন্ন অভিযোগ উঠলেও তার ক্ষমতার কারনে বেশীদূর পর্যন্ত গড়ায়না উল্লেখিত বিষয় গুলো। কিছুদিন পূর্বে সরকারের বরাদ্ধ দেওয়া চাল নিতে এসে সেখানেও লাঞ্চিত হয়েছিলেন আড়ানী পৌরসভার একজন মহিলা। এটি নিয়েও আলোচনায় এসেছিলেন মেয়র মুক্তার আলী।

স্থানিয়দের অভিযোগ মেয়র মুক্তার আলী প্রভাবশালী হওয়ার কারনে প্রকাশ্যে কেউ কিছু বলতে চায়না। তবে আড়ানী পৌরসভাকে বিভিন্ন সময় আধুনিকায়ন করার প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবে তার কোন সুফল ঘটেনি আড়ানী বাসির নিকট। আড়ানী বাজারের একজন আওয়ামীলীগের পদধারী বলেন আমরা আড়ানী পৌরসভার জন্য যোগ্য ব্যক্তি চাই তিনি দলবল নির্বিশেষে পৌরসভার উন্নয়ন করবেন।

তিনি বলেন আমরা মনে করছি শহীদুজ্জামান শহীদ কে আড়ানী পৌরসভার জন্য মেয়র হিসাবে পেলে উন্নয়ন হবে। আর প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে তার মত ব্যক্তির প্রয়োজন। মানব বন্ধনের বিষয় নিয়ে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলী বলেন এর আগেও মনোনয়নের ক্ষেত্রে কিছু ভুল হয়েছিল পরে সেগুলো ঠিক করা হয়েছে এই অঞ্চলের লোকজন সেই লক্ষেই মানব বন্ধন করেছে।

নবাগত মনোনয়ন পাওয়া শহীদুজ্জামান শহীদের সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের উপর সকল দেশ বাসির শ্রদ্ধা রয়েছে আমিও তাদের একজন। এ ছাড়াও এই অঞ্চলের প্রানপ্রিয় ব্যক্তিত্ব আলহাজ শাহরিয়ার আলম মন্ত্রী মহোদয়ের সিদ্ধান্ত আমার সিদ্ধান্ত। তারা চাইলে আমি নির্বাচন করব। এবং জয়ীহব একশো ভাগ।

 

স্ব:বা/না

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *