সহযোগী দিয়ে খতনা করাতে গিয়ে শিশুর বিশেষ অঙ্গ কর্তন

রাজশাহী লীড

স্টাফ রিপোর্টারঃ রাজশাহীর বাঘায় সহযোগী হাজাম দিয়ে পারভেজ হোসেন (৭) নামে এক শিশুর খতনা (মুসলমানি) করাতে গিয়ে বিশেষ অঙ্গ কেটে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পারভেজ হোসেন উপজেলার পদ্মার মধ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়নের পলাশি ফতেপুর চরের মোশারফ হোসেন মুসার ছেলে।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার চকরাজাপুর ইউনিয়নের লক্ষীনগরের তোতা হোসেন খতনা দেওয়া হাজামের কাজ করেন। তিনি ২ যুগেরও বেশি সময় ধরে এ কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত। তোতার সঙ্গে চক আহম্মদপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আনোয়ার হোসেন মিন্টু সহযোগী হিসেবে কাজ করেন। তোতা হোসেনের পরামর্শে পারভেজের খতনা করান আনোয়ার হোসেন মিন্টু।

এ সময় পারভেজের লিঙ্গ কেটে যায়। তারপর থেকে প্রচুর পরিমাণে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। একপর্যায়ে পরিবারের লোকজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা দেখে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে সহযোগী হাজাম আনোয়ার হোসেন মিন্টু বলেন, ভুল তো হতেই পারে। তাদের সঙ্গে বসে এর সমাধান করে নেব।

চকরাজাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজল আযম বলেন, বিষয়টি জানার পর পারভেজকে হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *