নাটোরের শেখ রিফাদ মাহমুদ গ্লোবাল ইয়ুথ লিডার সম্মাননা পেলেন

রাজশাহী লীড
নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরের শেখ রিফাদ মাহমুদ গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশীপ সম্মাননা পেয়েছেন। নেপাল সরকার ও আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক সংস্থাথর সহযোগিতায় গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্টের উদ্যোগে কাঠমুন্ডুথতে অনুষ্ঠিত দুই দিনব্যাপী বিশ্ব যুব সম্মেলনে গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী হয়েছেন।
শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে নেপালের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলী হলে অনুষ্ঠিত বিশ্ব যুব সম্মেলনের প্রথমদিন নেপালের উপ-রাষ্ট্রপতি নন্দ বাহাদুর পুন এ সম্মাননা প্রদান করেন। রিফাদের পক্ষ থেকে তার বাবা অধ্যক্ষ শেখ রকিবুল ইসলাম এ সম্মাননা গ্রহণ করেন।
নেপালের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলী হলে অনুষ্ঠিত বিশ্ব যুব সম্মেলনে ৬২টি দেশের যুব প্রতিনিধি ও কূটনৈতিকগণ অংশ নেয়। যুব সম্মেলনে নেপালে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতগণ, জাতিসংঘ ও সাার্কের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ বছর বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখা সম্ভাবনাময় ৩০জন তরুণকে গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড, গ্লোবাল এন্টারপ্রিনিউর অ্যাওয়ার্ড, ইমার্জিং লিডার অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। এই গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশীপ সম্মাননা পেয়ে শেখ রিফাদ মাহমুদসহ তার পরিবারের সকলেই উচ্ছসিত হয়েছেন।
উচ্ছ্বাসিত শেখ রিফাদ মাহমুদ জানান, ‘এ সম্মাননা ও স্বীকৃতি আমার সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবামূলক কাজ করার অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। ভবিষ্যতে শিশু অধিকার নিশ্চিত ও শিশুশ্রম বন্ধে কাজ করব। শুধু মুখের কথায় এবং সচেতনতার বার্তায় শিশুশ্রম রোধ সম্ভব হবে না। রোধ করতে হলে প্রথমে কর্মহীন অভিভাবকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। তবেই প্রকৃতপক্ষে শিশুশ্রম বন্ধ করা সম্ভব। আরও বিস্তৃত পরিসরে সামাজিক কাজ করার জন্য শেখ রকিবুল ইসলাম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনথ নামে দাতব্য সংস্থা প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছি আমি।’
শেখ রিফাদ মাহমুদ জাতিসংঘ প্রণীত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে সামাজিক কার্যক্রমে ভূমিকা রাখতে চান। তিনি বিভিন্ন সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত। শিশুদের শিক্ষা এবং অধিকার প্রতিষ্ঠান কাজ করছেন। করোনার শুরুতে নাটোর জেলাজুড়ে করোনা-সচেতন বার্তা পৌঁছে দেয়া সহও লিফলেট বিতরণ করেছেন। লকডাউনের সময় কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তাও পৌঁছে দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিনামূল্যে শিক্ষা-উপকরণ ও নতুন জামা-কাপড় বিতরণ করছেন। এছাড়া বিভিন্ন দুর্যোগ ও উৎসবে খাদ্য সহায়তা করে থাকেন।
রিফাদ নিজের টিফিন এবং হাত খরচের টাকা জমিয়ে দরিদ্র শিশুদের লেখাপড়ার জন্য বইখাতা, জামা-কাপড় ও খাবার কিনে দেওয়ার উদ্যোগ নেন। বর্তমানে তাদের সংগঠন লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘের উদ্যোগে দেশব্যাপী এ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।
প্রতি বছর গাছের চারা রোপন-বিতরণ, মাদক-বাল্যবিবাহ-ইভটিজিং বন্ধে সারা দেশের বিভিন্ন স্কুল-কলেজে গিয়ে সচেতনতামূলক সভা ও শপথবাক্য পাঠের আয়োজন করছে সংগঠনটি।
এবারের বিশ্ব যুব সম্মেলনে জলবায়ু রক্ষা, শিক্ষা ও অন্তর্ভুক্তি, যুব থেকে যুব কূটনীতিক, তরুণদের রাজনৈতিক ক্ষেত্রে অংশগ্রহণ, শান্তি রক্ষায় তরুণদের ভূমিকা, উদ্ভাবন, স্টার্টআপ এবং উদ্যোক্তা বিষয়ে কয়েকটি সেশনে আলোচনা করা হয়।
উল্লেখ্য, ১৭ বছর বয়সী শেখ রিফাদ মাহমুদ চলতি বছর শিশুদের নোবেলখ্যাত আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কারের জন্যও মনোনীত হয়েছিলেন। তিনি বর্তমানে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে কম্পিটার ডিপার্টমেন্টে পড়াশোনা করছেন।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *