নাটোরে অলৌকিক আগুনে পুড়ছে একটি পরিবার

চারণ সংবাদ রাজশাহী লীড
আল-আফতাব খান সুইট, বাগাতিপাড়া (নাটোর):
হঠাৎ করেই বাড়ির যেখানে সেখানে দাউ দাউ করে জ্বলে উঠছে আগুন! পুড়ে ছারখার হচ্ছে বাড়ির মূল্যমানের জিনিস! ঘরে বাইরে এমন আগুনে ঝলসানো জিনিসপত্র দেখে অবাক এলাকাবাসী। এমন অলৌকিক ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্যর সাথে আতংক ছড়াচ্ছে গোটা এলাকায়।
যদিও এই আগুন কীভাবে লাগছে, তার উৎসই বা কী? তা বুঝে উঠতে পারছে না পরিবারের সদস্য সহ গ্রামবাসীরা। অলৌকিক নাকি বিজ্ঞান? কেউই কোনওভাবেই এ ব্যাপারে সঠিক দিশা দেখাতে পারছে না। যদিও এর প্রকৃত ঘটনা কী তার সদুত্তর খুঁজে পাচ্ছেন না কেউই।
এমনই এক ঘটনা ঘটেছে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার বিপ্রবেলঘরিয়ার মমিনপুর গ্রামের ওমর আলীর ছেলে ভাঙ্গাড়ি ব্যবসায়ী বাকেরের বাড়িতে।
ওই পরিবার যেন এক অলৌকিক শক্তির সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরে যুদ্ধ করে চলেছেন। কখনও রাতে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় বাকেরের বিছানায় আগুন লেগে যাচ্ছে। আবার কখনও বাড়ির মহিলাদের কাপড়ে লেগে যাচ্ছে আগুন। এমনকি আগুন লাগছে ময়লা আবর্জনার স্তুপে। যা আতঙ্ক ছড়াচ্ছে পুরো এলাকায়।
জানা যায়, গত মাস (এপ্রিল) থেকে প্রায় দিনই এই ধরনের ঘটনা ঘটে চলেছে বারেকের পরিবারে। এ পর্যন্ত পরিবারের প্রায় সব কাপড় পুড়ে গেছে। বাড়ির পিছনের ঘর পুড়ে ছারখার হয়ে গেছে। কারণ অনুসন্ধান করতে পরিবারের সদস্যরা পালা করে রাতও জাগছেন। তবুও নিস্তার পাচ্ছেন না আগুনের হাত থেকে। এই পরিস্থিতি থেকে কবে রক্ষা পাবেন তারা? সেই চিন্তায় ঘুম ছুটেছে গোটা পরিবারের। যে কোনও সময় এই অদৃশ্য আগুন থেকে চরম বিপদ ঘটে যেতে পারে এই আশঙ্কায় প্রহর গুনছেন তারা।
স্থানীয় বিপ্রবেলঘরিয়া ইউপি সদস্য মুকুল মন্ডল, ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ও এলাকাবাসীরা বলেন, ঐ বাড়িতে হঠাৎ করেই লেগে যাচ্ছে আগুন, যদিও এই আগুন কীভাবে লাগছে, তার উৎস দেখা যায়নি। আগুন দেখছি কিন্তু-আগুন ধরার শুরুটা দেখতে পাইনি।
বাড়ির মালিক বারেক প্রাং বলেন, পূর্ব শত্রুতার কারনে কবিরাজ জ্বীনের মাধ্যমে এই কাজ করেছে। আমার বাড়িসহ আমার মেয়ে যেখানেই যাচ্ছে, সেখানেই আগুন ধরছে।
নলডাঙ্গা থানা জামে মসজিদের ইমাম আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, এটা দুষ্ট জ্বীনের আছর করছে। মানুষের মধ্যে যেমন খারাপ মানুষ থাকে, এমন জ্বীনের মধ্যে দুষ্ট জ্বীন আছে, যারা মানুষকে কষ্ট দিয়ে থাকে। তবে কোরআন ও হাদিসের আলোকে তাকে প্রতিহত করা যাবে।
স্ব.বা/বা
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *