আমিও রক্ত মাংসের মানুষ, আমারও তো একটা মন আছে: সানি লিওন

বিনোদন

একসময়ের কানাডিয়ান পর্নোতারকা সানি লিওন এখন পুরদস্তুর ভারতীয় শিখ সম্প্রদায়ের একজন বলি অভিনেত্রী।

তবু তাকে প্রায়শই নেতিবাচক মন্তব্যের সম্মুখীন হতে হয়, বিশেষত সোশ্যাল মিডিয়ায়। এ বিষয়ে অনেকটা অসন্তুষ্ট বলিউড বেবিডল সানি লিওন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সানি যৌন হেনস্তার শিকার হচ্ছেন প্রায় নিয়মিতই। এতে অনেকটা হাঁপিয়ে উঠেছেন সানি লিওন।

তিনি জানান, যখন ‘ননসেন্স’ বিষয়গুলো বেশি প্রচার পায়, তখনই তিনি বিরক্ত ও বিব্রত হন।

এ বিষয়ে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা আইএএনএসকে এক সাক্ষাৎকারে সালি লিওন বলেন, ‘আমিও রক্ত-মাংসের মানুষ, আমারও তো একটি মন আছে। এসব নেতিবাচক মন্তব্য কতটা এড়িয়ে যেতে পারি!

সানি বলেন, ‘প্রত্যেকটি পরিস্থিতি আলাদা। আমি সবসময় সাংবাদিকদের বেনিফিট অফ ডাউট দিতে চাই। আমি সাহসী কাজ করে তাদের দেখিয়ে দিয়েছি।’

এ সময় অনেকটা আবেগি হয়ে ওঠেন সানি। পেছনের কর্মকাণ্ড প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি জানতাম না এটা আমাকে এতটা ছুঁয়ে যাবে। প্রতিদিন কাঁদতাম। ভাবতাম আমি কী ঠিক পথে চলেছি!’

এখন তিনি ঠিক পথেই হাঁটছেন। দর্শকদের আরও ভালো কিছু কাজ উপহারের নিশ্চয়তাও দিচ্ছেন এই বলি অভিনেত্রী।

তবু কেন মানুষ তাকে বারংবার অপমানিত করেন সে বিষয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেন সানি।

তিনি বলেন, যখন মিডিয়া এমন অপ্রাসঙ্গিক বিষয়গুলো নিয়ে বাড়াবাড়ি করে, যেগুলো মানুষকে কষ্ট দেয়; তখন খারাপ লাগে।

তবে নেটিজেনদের তার প্রতি এই ঘৃণা তাকে ভালো কাজ থেকে বিরত রাখতে পারবে না বলেও জানান সানি।

তিনি বলেন, কীভাবে নিজেকে ‘সুরক্ষিত’ রাখতে হয় তা আমি ভালো করেই জানি।

এ বিষয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশি সংগীতশিল্পী কৌশিক তাপসের লাভলি অ্যাক্সিডেন্ট শিরোনামের একটি গানের কথা উল্লেখ করে সানি বলেন, ‘গানটির সুর এত ভালো যে কাজটা করতে ভীষণ আনন্দ পেয়েছি। শেষ পর্যন্ত কী হবে জানি না। তবে কাজটার জন্য আমরা অনেক খেটেছি।’

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে পূজা ভাটের জিসম টুর মাধ্যমে বলিউডে ডেব্যু করার আগে সানি লিওন বিতর্কিত রিয়ালিটি শো বিগ বসে অংশ নিয়েছিলেন।

পরে তিনি রাগিনী এমএমএস-টু, এক পহেলি লীলা, কুছ কুছ লোচা হ্যায়, মস্তিজাদে, তেরা ইন্তেজার সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

এ বছরের শুরুতে তিনি নিজের জীবনীভিত্তিক করণজিৎ কৌর : দ্য আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওনে নামে একটি ওয়েব সিরিজে কাজ করেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.