বিদ্রুপের শিকার এশা

বিনোদন

ফটোশুটের কারণে এবারই প্রথম অপদস্থ হলেন না সাবেক মিস ইন্ডিয়া ইন্টারন্যাশনাল এশা গুপ্ত। এর আগেও বহুবার সমালোচনার স্বীকার হয়েছেন তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে ‘জান্নাত-২’ খ্যাত এই বলিউড অভিনেত্রী সামাজিক মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে একের পর এক ছবি শেয়ার করে যাচ্ছেন।

বিখ্যাত আলোকচিত্রী রাহুল ঝাঙ্গিয়ানির তোলা বেশ কয়েকটি ‘দৃষ্টি আকর্ষণ করা’ ছবি পোস্ট করেছেন এশা। আর এর পরই নেটিজেনরা তাকে বিদ্রুপ করা শুরু করেন। রাহুলের তোলা ছবিতে এশাকে বয়ফ্রেন্ড জিন্স আর কেলভিন ক্লেইনের অন্তর্বাস পরিহিত দেখা যায়। টপলেস এশা শরীরে আঁকা ট্যাটুও প্রদর্শন করেন। তবে নায়িকার ওই ছবিগুলো দেখে সন্তুষ্ট হতে পারেননি এশার ভক্ত ও অনুরাগীরা। এক ভক্ত তাকে প্রশ্ন করেছেন, ‘কী রাবিশ এসব, ম্যাম, আপনি কি পাগল হয়ে গেছেন, নাকি মাথা আউলিয়ে গেছে?’ এশার আরেক অনুরাগী মন্তব্য করেছেন, ‘তার হাতে এখন কোনো সিনেমা নেই তো।’

ছবির মন্তব্য-ঘরে আরেক অনুরাগী এশার উদ্দেশে লিখেছেন, ‘কেনো করছেন এসব? আপনার ঘরের মানুষ এসব দেখলে কী বলবে বলুন তো।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘যখন হাতে কোনো কাজ থাকে না।’

নেটিজেনদের এই ট্রল বা বিদ্রুপ প্রসঙ্গে ইন্ডিয়া টুডেকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এশা গুপ্ত বলেছিলেন, ‘যখন কোনো বিদেশিনীকে তারা বিকিনি পরতে দেখে, তখন মানুষ কিছু বলে না। কিন্তু যখনই ভারতীয়কে পরতে দেখে, তখনই মন্তব্য চলতে থাকে, ইস্যু বানানো হয়। মনে হচ্ছে এটাই হিন্দুস্তানের সংস্কৃতি হয়ে দাঁড়িয়েছে।’ বিদ্রুপকারীদের উদ্দেশে এই অভিনেত্রী প্রশ্ন রাখেন, ‘আপনার সংস্কার কি আমাকে পতিতা বলতে শেখায়?’ এসবের জন্য শিক্ষার অভাবকেই দায়ী করেছেন। এশা বলেন, ‘শিক্ষার অভাবই প্রধান সমস্যা। মেয়েরা তাদের উসকে দিচ্ছে না, এটা তাদের জঘন্য মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ।’

Spread the love
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.