বাঘায় প্রায় এক লক্ষ টাকার হেরোইনসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

রাজশাহী

বাঘা প্রতিনিধি: গৃহিণী সীমা বেগম সবাই তাকে চিনেন মাদক ব্যবসায়ী সীমা বেগম চকছাতারী গ্রামের সুলতানের মেয়ে। মাদক ব্যবসায়ী তবে এলাকার অনেক মানুষ জানেন মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে। বেশ কয়েক বছর ধরে স্বামী-স্ত্রী এ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। ইয়াবা হিরোইন এর ব্যবসা এদের দীর্ঘদিন পুলিশের সন্দেহের তালিকায় থাকলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল সীমা অবশেষে ধরা পড়েছে। বাঘা থানা পুলিশের হাতে। লক্ষাধিক টাকার ২৭ গ্রাম হেরোইনসহ নারী মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিবার(২৯-৮-২০২১) রাত ১০ টার দিকে নিজ বাড়ী থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

 

জানা যায়, সীমার সিরাজগঞ্জ জেলার শাজাদপুর উপজেলায় বিয়ে হলেও স্বামী-স্ত্রী বাঘাতে ঘর জামায় থেকে সু-কৌশলে মাদক ব্যবসা করেন। সীমা বেগম একজন চিহ্নিত নারী মাদক ব্যবসায়ী। দীর্ঘদিন থেকে মাদক ব্যবসা করে আসছিলেন তিনি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ জানতে পারে রবিবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে একজন ক্রেতা সীমার বাড়ীতে রাখা হোরোইন ক্রয় করতে যাবেন। এই তথ্যের ভিত্তিতে বাঘা থানার পুলিশের উপ পরিদর্শক (এস.আই ) স্বপন হোসেন, তৈয়ব আলী, আব্দুল কুদ্দুস, তরিকুল ইসলাম,আব্দুর রউফ ও সহকারি উপ পরিদর্শক (এএসআই) আবু বক্কর সিদ্দিক সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে তাঁর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২৭ গ্রাম হেরোইনসহ তাঁকে গ্রেপ্তার করেন। অভিযানে সীমার সাথে উদ্ধারকৃত ২৭ গ্রাম হেরোইনের বাজার মূল্য লক্ষাধিক টাকা হতে পারে বলে জানায় পুলিশ।

 

স্থানীয়রা লোকজন জানান, প্রশাসনকে ম্যানেজ করে কৌশলে ইয়াবা, ও হেরোইনের ব্যবসা করে আসছিলেন। সীমা মাদক ব্যবসার করে নির্মাণ করেছেন ফ্লাট বাড়ি কিনেছেন দুইটা ট্রাক ও ১২ বিঘা জমি । বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান,তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দিয়ে সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

স্ব.বা/বা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *