বাঘায় পদ্মা নদীর পাড় স্লোপিং এর নামে রাতের আধারে বিক্রি হচ্ছে বালু

রাজশাহী

বাঘা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাঘায় পদ্মা নদীর পাড় স্লোপিং এর নামে রাতের আধারে বালু বিক্রি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে প্রশাসনকে জানিয়েও কোন প্রতিকার পাচ্ছেনা বলে পদ্মার পাড়ে বসবাসকারীদের অভিযোগ।

জানা যায়, উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নের মীরগঞ্জ চায়পাড়া ও বাজার ঘাট পদ্মা নদীর বাঁধ নির্মান এলাকায় কিছু লোকজন ভেকু নামিয়ে দেদারছে ভরাট বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছেন। এই বালু উত্তোলনের প্রতিবাদ করতে গিয়ে তোপের মুখে পড়তে হয়েছে স্থানীয়দের।

নদীর তীর রক্ষার জন্য ১০টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বøক তৈরীর পাশাপাশি নদীর পাড় স্লোপিং এর কাজ করছেন। যতোটুকু মাটি তোলার দরকার সেটি না করে কতিপয় প্রভাবশালীরা অতিরিক্ত প্রতিদিন রাতে শত শত ট্রাক বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছেন। ফলে ব্লক দিলেও হুমকিতে থাকবে এই বাধ এমন অভিযোগ স্থানীয়দের।

চারঘাটের ইউসুপপুর থেকে বাঘার গোকুলপুর ঘাট পর্যন্ত নদীর তীর রক্ষায় ৭২৪ কোটি টাকায় ১২ কিলোমিটার বাঁধ এবং চকরাজাপুর এলাকায় নদী ড্রেজিং করার জন্য আরো সাড়ে তিন কোটি টাকা একনেকে পাশ হয়ে বরাদ্দ অনুমোদন হয়। এগুলোর কাজ করছেন ১০টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

এ বিষয়ে খন্দকার কন্সষ্টাকশনের ম্যানেজার নুরুনবী বলেন, নদীর পাড় থেকে ২৫ মিটার এবং ৩৫ মিটার ডামপিং হবে। ডামপিং থেকে কিছু বালু এনে পাড় বাঁধার কাজ করা হচ্ছে। এই সুযোগে ভরাট বালু কিছু মানুষ ভেকু দিয়ে রাতের আধারে উত্তোলন করে বিক্রি করছেন।

এ বিষয়ে মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন, শুনেছি কে বা কারা রাতের আধারে ভরাট বালু উত্তোলন করছেন।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা বলেন, এ বিষয়ে আমাকে কেউ কোন অবগত বা অভিযোগ করেনি। তারপরও খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্ব:বা/না

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *