বদির পিতৃত্বের দাবিতে মামলা, নিরাপত্তাহীনতায় যুবক

সারাদেশ

স্বদেশবাণী ডেস্ক: কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদিকে নিজের বাবা দাবি করে টেকনাফের এক যুবকের দায়ের করা মামলায় জারি করা সমনের চিঠি আদালতে ফেরত না আসায় আজ বৃহস্পতিবারও শুনানী অনুষ্ঠিত হয়নি। মামলা করে উল্টো নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বাদী মোহাম্মদ ইসহাক।

এদিন দুপুর পৌনে ১টায় এ তথ্য জানান মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী কফিল উদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, মামলার আসামির বিরুদ্ধে আদালত কর্তৃক ইস্যুকৃত সমনপত্র এখনও ফেরত আসেনি। তাই মামলার নির্ধারিত দিনে শুনানী অনুষ্ঠিত হয়নি। যেহেতু সমনপত্র ফেরত আসেনি সেহেতু আসামি সময় পেয়েছেন।

এসময় জারিকৃত সমনপত্র ফেরত আসার পর আদালতের পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানা যাবে বলে মন্তব্য করেন বাদীপক্ষের এ আইনজীবী। অপরদিকে মামলার বাদি মোহাম্মদ ইসহাক জানান, মামলা দায়েরের পর তিনি নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৩ ডিসেম্বর টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালী পাড়ার ২৭ বছর বয়স যুবক মোহাম্মদ ইসহাক কক্সবাজার-৪ আসনের (উখিয়া-টেকনাফ) সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদিকে নিজের পিতা দাবি করে টেকনাফের সহকারি জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলায় বদি ছাড়াও মূল-বিবাদী করা হয়েছে বদির চাচা টেকনাফের পৌর মেয়র হাজী মোহাম্মদ ইসলামকে। ওইদিন মামলাটি আমলে নিয়ে মূল-বিবাদী আব্দুর রহমান বদিসহ অন্যদের ১৪ জানুয়াারী স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে জবানবন্দি দেয়ার আদেশ দিয়েছিলেন।

জানা যায়, গত ৩০ বছর আগে টেকনাফ পৌরসভার ইসলামাবাদ ধুমপাড়ার বাসিন্দা আবুল বশরের মেয়ে সুফিয়া খাতুনকে আব্দুর রহমান বদি বিয়ে করেন বলে মামলার বাদী মোহাম্মদ ইসহাক দাবি করেন। তিনি সুফিয়া খাতুনের একমাত্র সন্তান।

সেই সূত্রে তিনিই আব্দুর রহমান বদির প্রথম ছেলে সন্তান বলে দাবি বাদী মোহাম্মদ ইসহাকের। আর এ নিয়ে বিষয়টি এখনও নিস্পত্তি না হওয়ায় তিনি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও জানান।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *