শ্রীমঙ্গলের লাউয়াছড়া বনে মেছো বাঘ অবমুক্ত

সারাদেশ

স্বদেশবাণী ডেস্ক: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে জন্ম নেয়া একটি মেছো বাঘ প্রথমবারের মতো ফিরলো তার আপন ভুবনে। এর আগে বিকেল ৪টায় প্রথম সে গাড়িতে চড়ে সাড়ে ৪টার দিকে গাড়িতে করে বনে প্রবেশ করে। তারপর সেখানে নামানো হয় তার খাঁচা। বনে খাঁচা নামানোর পর বাঘটির নিজের আবাসন জঙ্গল হলেও তার কাছে এটি অপরিচিত।

লাউয়াছড়া বনে মেছো বাঘ অবমুক্ত করেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান। এতে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সিতেশ রঞ্জন দেব, শ্রীমঙ্গল সহকারী কমিশনার ভুমি মো. নেছার উদ্দিন, সহকারী বন সংরক্ষক আবু বক্কর সিদ্দিকি, রেঞ্জ অফিসার আব্দুল মোতালিব ও সজল দেব প্রমূখ।

বেশ কয়েক প্রজাতির বন্যপ্রাণীও ছিলো। তাদের মধ্যে ছিল একটি অজগর, একটি লজ্জাবতী বানর, একটি সংকনী সাপ ও একটি গন্ধগকুলসহ আরও বেশ কয়েকটি বন্যপ্রাণী।

বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব জানান, বছর দেড়েক আগে বাঘটির মাকে দিনারপুর এলাকা থেকে আহতবস্থায় উদ্বার করা হয়। সেবা ফাউন্ডেশনে রেখে সুস্থ করার সময় বাঘটি দুটি বাচ্চা দেয়। এটি তাদের একটি।

বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সিতেশ রঞ্জন দেব জানান, সেবা ফাউন্ডেশনে অনেক প্রাণী আছে। কিছু প্রাণী বনের পরিবেশে অমানান। তাছাড়া আগের বন এখন নেই। বনে এখন মানুষের বিচরণ। বনে পানি ও পশু খাদ্যের অভাব রয়েছে। তাই সব প্রাণী সব সময় অবমুক্ত করতে পারেন না। আবার এদের জন্য সেবা ফাউন্ডেশনে প্রচুর খাদ্যেরও যোগান দিতে তাকে হিমসীম খেতে হয়। তাই অবমুক্ত না করেও উপায় নেই। তাই মঙ্গলবার তিনি বাঘসহ অনান্য প্রাণীগুলো অবমুক্ত করেন। তিনি জানান, তাঁর সেবা ফাউন্ডেশনে জন্ম নেয়া আরও কিছু প্রাণী আছে সেগুলোও তিনি আগামীতে অবমুক্ত করবেন।

বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবসে বন বিভাগের সহযোগীতায় লোকালয়ে মানুষের হাতে আহতবস্থায় ধরা পড়া ও সেবা ফাউন্ডেশনে জন্ম নেয়া এ প্রাণীগুলো অবমুক্ত করার পর তিনি অতিথিদের নিয়ে বনে পাখির খাদ্যের জন্য একটি বট বৃক্ষরোপন করা হয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *