ভারতে পাচার হওয়া ৮ নারী দেশে হস্তান্তর

সারাদেশ

স্বদেশবাণী ডেস্ক: সীমান্তের অবৈধ পথে বিভিন্ন সময় ভালো কাজের প্রলোভনে পড়ে দালালের মাধ্যমে ভারতে পাচার হওয়া ৮ বাংলাদেশি নারীকে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ।

শুক্রবার (১৯ মার্চ) বিকেলে বেনাপোল চেকপোস্টের বিপরীতে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ ভারত সরকারের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

ফেরত আসা নারীরা হলেন, যশোরের বেনাপোলের সুলতান মোল্লার মেয়ে ময়না বেগম, শার্শার জয়নাল আবেদীনের মেয়ে রেশমা খাতুন, খুলনার জয়দেব শেখের মেয়ে মিনা শেখ, সাতক্ষীরা জেলার কাশেম মোল্লার মেয়ে শান্তি বেগম, একই জেলার আব্দুল সাত্তারে মেয়ে সাবিনা খাতুন, আজিবার লস্করের মেয়ে বিলাশি পাপিয়া, ওয়াজেদ আলীর মেয়ে ফাতিমা খাতুন ও দীন ইসলামের মেয়ে হীরা মনি।

বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ফেরত আসা আট বাংলাদেশি নারীকে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন  আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছেন। কাগজ পত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে পুলিশ তাদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি (অপারেশন) আজিজুল হক জানান, থানার আনুষ্ঠানিকতা শেষে সন্ধ্যায় ফেরত আসা আট নারীকে স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে জাস্টিক এন্ড কেয়ার নামের একটি এনজিও সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে তাদের পরিবারের কাছে পৌছে দেওয়ার জন্য।

যশোরের সিনিয়র প্রোগ্রামার অফিসার শাওলী সুলতানা জানান, ভুক্তভোগীরা বিভিন্ন সময় দালালের প্রলোভনে পড়ে দেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে অবৈধ পথে ভারতে মুম্বাইয়ে পাচার হয়। পরে মুম্বাইয়ের  পুলিশ  তাদেরকে আটক করলে প্রায় দেড় বছর কারাভোগ করেন। পরবর্তীতে মুম্বাইয়ের ‘নব জীবন’ নামে একটি এনজিও তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। এরপর দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে চিঠি চালাচালির মাধ্যমে আজ তাদেরকে ভারত সরকারের দেওয়া ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে দেশে ফেরত পাঠানো হয়। থানা থেকে তাদের নিয়ে যশোরে তাদের সংস্থার নিজস্ব শেল্টার হোমে রাখা হবে। পরে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে তিনি জানান।
কেআই//

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *