মান্দায় বিদ্রোহী আলতাজের সমর্থকদের বর্বরোচিত হামলা ৪ জন আহতের ঘটনায় মানববন্ধনের ডাক 

রাজশাহী
তানোর প্রতিনিধি: রাজশাহীর তানোরের সীমান্তবর্তী এলাকা মান্দা উপজেলায় বিলের জমি জবর দখলকে কেন্দ্র করে বিদ্রোহী আলতাজের সমর্থক ভুমিগ্রাসী দানেশ ও মোবারক বাহিনীর হামলায় চারজন আহত হয়েছে। নৌকার প্রার্থী সুমনের কাছে পরাজিত হয়ে বিদ্রোহী আলতাজের সমর্থকরা একের পর এক হামলা মারপিট করে এলাকায় অশান্তি সৃষ্টি করছেন।  এ ঘটনায় পাকুড়িয়া গ্রামের সাইদুল ইসলামের পুত্র আতাউর ইসলাম বাদি হয়ে দানেশ ও মোবারকসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ ও প্রায় ৪০ জন অজ্ঞাতনামা আসামি করে মান্দা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। এছাড়া মারপিটের ঘটনায় আগামীকাল (১৬ জানুয়ারি) রবিবার বিকেলে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধনের ডাক দেয়া হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, উপজেলার এক নম্বর ভারশোঁ ইউনিয়নের (ইউপি) মহানগর গ্রাম সংলগ্ন বিলে প্রায় ২০০ বিঘা খাস জমি রয়েছে, কিন্তু জমির শ্রেণী জলকর তাই পত্তন দেওয়া হয় না। শুস্ক মৌসুমে এসব জমি জেগে উঠলেও বর্ষা মৌসুমে ডুবে যায়, জেগে উঠা জমিতে বছরে একটি মাত্র ফসল হয়। ফলে বিল পাড়ের ভুমিহীনরা দীর্ঘদিন ধরে শান্তিপূর্ণ ভাবে  এসব জমিতে ৬ মাস চাষাবাদ ও ৬ মাস মাছ আহরণ করে জীবীকা নির্বাহ করে আসছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত( ৯ জানুয়ারী) রবিবার বিকেলে দানেশ ও মোবারক দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আতাউর ইসলামের জমিতে হালচাষ করে। এ খবর পেয়ে আতাউর জমিতে গিয়ে হালচাষ বন্ধ করতে বলে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দানেশের লোকজন আতাউরকে মারপিট করে। তারা বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করেন। প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রের ভাষ্য,গত (১৪ জানুয়ারী) শুক্রবার আতাউর ইসলাম জমি চাষ করতে গেলে ফের দানেশ ও মোবারক বাহিনী বাধা দিয়ে বলেন, এসব জমিতে চাষাবাদ করতে হলে তাদের এককালিন ৬০ হাজার টাকা দিতে হবে। কিন্তু আতাউর টাকা দিতে অপারগতা জানিয়ে জমিতে নামেন। এ সময় দানেশ ও মোবারক বাহিনী তাদের ওপর হামলা করে ৪জনকে আহত করে। আহতরা হলেন, ভারশোঁ দক্ষিণপাড়ার মিনুর ছেলে সিরাজ উদ্দিন (৫০), মহানগর গ্রামের দিলবর রহমানের ছেলে উজ্জল (৪৫), একই এলাকার মেজিশেন এবং একজনের নাম পরিচয় জানা যায়নি। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ওইদিনই মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তবে এদের মধ্যে সিরাজ উদ্দিন এবং উজ্জলের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) রেফার্ড করা হয়েছে। এদিকে এলাকাবাসী দানেশ ও মোবারক বাহিনীর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেম কামনা করেছেন।
এবিষয়ে দানেশ ও মোবারক অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, প্রতিপক্ষরাই তাদের লোকজনকে মারপিট করেছে। বিদ্রোহী আলতাজ জানান চেয়ারম্যানের লোকজন জমি জোরপূর্বক দখল করতে গিয়েছিল। এজন্য মারপিট হয়। নৌকার নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মুস্তাফিজুর রহমান সুমন জানান আলতাজ ভোটে পরাজিত হওয়ার পর থেকেই নৌকার ভোটার ও সমর্থকদের উপর হামলা করেই চলেছে। তিনি হেরে তালমাতাল অবস্থায় পড়ে এবং দলে জায়গা না থাকার কারনেই তিনি উম্মাদের মত ধারাবাহিক হামলা চালাচ্ছে। এব্যাপারে মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, মামলা হয়েছে আসামি ধরতে নিয়োমিত অভিযান চালানো হচ্ছে। তবে আসামিরা পলাতক রয়েছেন। অন্যদিকে এ হামলার ঘটনায় আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে আগামীকাল রবিবার বিকেলে মানববন্ধনের ডাক দেয়া হয়েছে।

স্ব.বা/বা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *