মহাকাশ থেকে অস্বাভাবিক তরঙ্গ এলো পৃথিবীতে

তথ্যপ্রযুক্তি

স্বদেশবাণী ডেস্ক : মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির কেন্দ্র থেকে অস্বাভাবিক বেতার তরঙ্গ আসছে বলে জানিয়েন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। এই তরঙ্গ শনাক্তের পর বিজ্ঞানীরা বলছেন, এমন ঘটনা আগে কখনো ঘটেনি। এর অর্থ হতে পারে মহাজাগতিক কোনও বস্তুর অস্তিত্ব জানান দিচ্ছে এই সঙ্কেত।

দ্য অ্যাস্ট্রোফিজিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত গবেষণার প্রধান লেখক জিতেং ওয়াং বলেন, মহাজাগতিক বস্তুটির উজ্জ্বলতা ক্ষণে ক্ষণে পরিবর্তন হচ্ছে এবং সংকেতও হঠাৎ চালু কিংবা বন্ধ হচ্ছে।

নতুন এই সংকেতের সবচেয়ে অদ্ভুত ব্যাপার হলো এর পোলারাইজেশন খুব বেশি। অর্থাৎ এর আলো কেবল একদিকে স্পন্দিত হয়। তবে সেই দিকটি সময়ের সঙ্গে বদলায়।

গবেষক দলটি প্রথমে ভেবেছিল, এটা হয়তো পালসার, অর্থাৎ দ্রুত ঘূর্ণায়মান নিউট্রন নক্ষত্র। কিংবা এমন নক্ষত্র, যা বিশাল অগ্নিঝড় নির্গত করে। তবে সে ধরনের নক্ষত্রের সঙ্গে নতুন আসা এই বেতার তরঙ্গ পুরোপুরি মেলে না।

রাতের আকাশে অবস্থান অনুযায়ী নতুন মহাজাগতিক বস্তুটির নাম রাখা হয়েছে ‘এএসকেএপি জে১৭৩৬০৮.২-৩২১৬৩৫’।

সিডনি ইনস্টিটিউট ফর অ্যাস্ট্রোনমি এবং ইউনিভার্সিটি অব সিডনির অধ্যাপক টারা মারফি বলেন, ‘বস্তুটি অনন্য, কারণ শুরুতে সেটি অদৃশ্য ছিল, ক্রমে উজ্জ্বল হয়েছে, হারিয়ে গেছে এবং আবার ফিরে এসেছে।’

গবেষকরা গত বছর নয় মাসের মধ্যে ছয়টি রেডিও তরঙ্গ পেয়েছিলেন, কিন্তু বিজ্ঞানীরা যখন এটির উৎস খুঁজতে গিয়েছিলেন তখন কিছুই দেখা যায়নি।

এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার আরও সংবেদনশীল মিরক্যাট রেডিও টেলিস্কোপ দিয়ে সংকেতের উৎস খোঁজার চেষ্টা চালানো হয়।

সংকেতটি আবার পাওয়ার আশায় কয়েক সপ্তাহ পরপর ১৫ মিনিটের জন্য পর্যবেক্ষণ করতেন বলেও জানান মারফি।

সবশেষ সম্প্রতি আবারও সংকেত ধরা পড়ে। তবে এই সংকেতের উৎস ভিন্ন ধরনের মনে হয় তাদের।

আগের পর্যবেক্ষণে কয়েক সপ্তাহ ধরে সংকেত পেলেও এবারে কেবল এক দিন পরই তা বন্ধ হয়ে যায়।

রেডিও তরঙ্গ কী পাঠাচ্ছে তার কোনও স্পষ্ট উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি। তবে আরও শক্তিশালী টেলিস্কোপ রহস্যের সমাধানে সাহায্য করবে বলে মনে করছেন মারফি।

সূত্র: ইউএসএ টুডে

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *