গুগলের ভুল ধরে ৬৫ কোটি টাকা পুরস্কার

তথ্যপ্রযুক্তি

স্বদেশ বাণী ডেস্ক: বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন টেক জায়ান্ট গুগল। মনের সব প্রশ্নের উত্তর এক নিমিষেই দিয়ে দেয়। সেই গুগলেরই কি না ভুল ধরা পড়লো। আবার তার জন্য কোটি টাকার পুরস্কারও জিতে নেওয়া। হ্যাঁ, এমনটাই ঘটেছে আমান পাণ্ডের সঙ্গে। ভারতীয় সাইবার-সিকিউরিটি রিসার্চার আমান। গুগলের বেশ বড়োসড়ো ভুল ধরিয়ে দিলেন তিনি। সেই ভুলটি ছিল সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্টের মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডে। প্রথমে অ্যান্ড্রয়েডের সেই ভুল ((Vulnerabilities In Android) শনাক্ত করেন আমান। এরপর সেই সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট জমা দেন তিনি।

এর মাধ্যমে অপারেটিং সিস্টেমটিকে বিশ্ববাসীর জন্য আরও নিরাপদ করে তুললেন বলে জানিয়েছে স্বয়ং গুগল। এজন্য আমান মোটা অঙ্কের পুরস্কারও জিতে নিয়েছেন গুগলের কাছ থেকে।

টেক জায়ান্ট গুগলের পক্ষ থেকে একটি ব্লগস্পোস্টে বলা হয়েছে, বাগসমিররের আমান পাণ্ডেও গুগলের একাধিক ভুলত্রুটির রিপোর্ট জমা দিয়ে টপ মোস্ট রিসার্চার হয়েছেন। কেবল ২০২১ সালেই আমান গুগলের ২৩২টি ভুল শনাক্ত করেন।

তবে এবারই প্রথম নয়, ২০১৯ সালে প্রথম গুগলের নানা ত্রুটি শনাক্ত করে রিপোর্ট জমা দিয়েছিলেন আমান। এখন পর্যন্ত গুগলের অ্যান্ড্রয়েড ভালনারেবিলিটিজ রিওয়ার্ডস প্রোগ্রামে মোট ২৮০টি রিপোর্ট সাবমিট করেছেন আমান, যা প্রোগ্রামটিকে সফল হওয়ার জন্য অনেকখানিই এগিয়ে দিয়েছে।

এমন ভালনারেবিলিটিজ যে শুধু গুগলের মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডের জন্য হয় এমনটা নয়। একই সঙ্গে গুগল ক্রোম, সার্চ, প্লে এবং অন্যান্য প্রডাক্টের ক্ষেত্রেও এটি হয়। এমন সমস্যা বহুদিন ধরেই হয়ে আসছে।

এই ধরনের প্রোগ্রামকে প্রযুক্তির ভাষায় বলা হয় বাগস বাউন্টি। শুধু গুগল নয়। অ্যাপল বা মাইক্রোসফটের মতো সংস্থাও এই ধরনের প্রোগ্রাম কর। কারণ প্রতিটি প্ল্যাটফর্মেই নিরাপত্তাজনিত কিছু ভুলত্রুটি থাকেই।

যারা সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু ভুল ধরতে পারেন, তাদের ৮.৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরস্কার হিসেবে দিয়ে থাকে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল। মধ্যপ্রদেশের আমান পাণ্ডেও এই ৮.৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পেয়েছেন, যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৬৫ কোটি টাকা।

অ্যান্ড্রয়েডে ভুল ধরার জন্য সবথেকে বেশি টাকা পুরস্কার হিসেবে দেয় গুগল। এমনকি পুরস্কারের পরিমাণ ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালে আরও ৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাড়িয়েছে তারা। এখন পর্যন্ত গুগল ভিআরপি ইতিহাসে সবথেকে বেশি পুরস্কারমূল্য দিয়েছে ১ লাখ ৫৭ হাজার মার্কিন ডলার। সেটি অ্যান্ড্রয়েডে এক্সপ্লয়েট চেন আবিষ্কারের জন্য দেওয়া হয়েছিল।

২০২১ সালে ১১৫ জন ক্রোম ভিআরপি রিসার্চারকে ৩৩৩ ইউনিক ক্রোম সিকিওরিটি বাগ রিপোর্ট করার জন্য মোট ২.২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। আবার ক্রোমের ব্রাউজার সিকিওরিটি বাগ রিপোর্ট করার জন্য ৩.১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং ক্রোম অপারেটিং সিস্টেম বাগের জন্য ২ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল ২০২১ সালেই।

এনআইটি ভোপাল থেকে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে আমান বাগসমিররের সিইও হিসেবে যোগ দেন। বাগসমিরর ইনদওরের একটি সংস্থা। ২০২১ সালেই তিনি এই বাগসমিরর নামক সংস্থাটির প্রতিষ্ঠা করেন।

স্ব.বা/ রু

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *