তানোরে পুকুর খননের মাটি বিক্রি করতে গিয়ে নষ্ট হচ্ছে কোটি টাকার পাকা রাস্তা,নীরব প্রশাসন

রাজশাহী
সারোয়ার হোসেন, রাজশাহী : রাজশাহীর তানোর উপজেলা জুড়ে সর্বত্র চলছে নতুন ও পুরাতন পুকুর খননের হিড়িক। আর সেই পুকুর খননের মাটি বিক্রি করতে গিয়ে নষ্ট করছে সরকারের কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত পাকা রাস্তা। পাশাপাশি নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য ও বাড়ছে পথচারী জনসাধারণের স্বাস্থ ঝুঁকি। উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামে ও তানোর পৌর এলাকার বেলপুকুরিয়া গ্রামে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, এইসব পুকুর খননের মাটি ট্রাক্টার(কাঁকড়া) দিয়ে বহন করে বিক্রি করতে গিয়ে নষ্ট করা হচ্ছে পাকা রাস্তা।
জানা গেছে, বেশকিছু চক্র বাহিনী দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন পুরাতন পুকুর সংস্করণ করার নামে পুকুর মালিকদের ম্যানেজ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও অথবা এসিল্যান্ড (ভূমি) অফিসে নামমাত্র আবেদন করে সেই আবেদনেই দেদারসে পুকুর খননের নামে চালাচ্ছেন মাটি বিক্রির ব্যবসা। ফলে, পুকুরের মাটি পরিবহনে করে বহন করতে গিয়ে গাড়ি থেকে কাঁদা মাটি পাকা রাস্তায় পড়ে হরহামেশাই ঘটছে ছোট বড় দৃর্ঘটনা। এমনকি( কাঁকড়া) ট্রাক্টারের বড় বড় চাকা প্রতিনিয়ত পাকা রাস্তার ইট সলিং, পিচ পাথরের গুড়ি ছিদ্র করা সহ রাস্তার ধুলো বালি উড়ে পথচারীদের চোখে মুখে পড়ছে। যার কারণে চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে চলাচল করতে হচ্ছে পথচারী জনসাধারণ কে।
এতে করে সরকারের কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত পাকা রাস্তা নষ্ট করে ও পথচারীদের স্বাস্থ ঝুঁকিতে ফেলে ট্রাক্টারে করে মাটি বিক্রি দিনের পর দিন বেপরোয়া হয়ে উঠলেও কোন নজর নেই উপজেলা প্রশাসনের। তানোর পৌর এলাকার বেলপুকুরিয়া গ্রামের টিপু বলেন, পুকুর খননের পঁচা কাঁদা মাটি গাড়িতে বহন করতে গিয়ে সেই কাদাঁ পচাঁ মাটি গাড়ি থেকে রাস্তায় পড়ে মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে পথচারীদের। অনেক সময় কাঁদায় মোটরসাইকেল সিলিপ করে ঘটছে ছোট বড় দৃর্ঘটনা। উপজেলা প্রশাসনকে অভিযোগ দিয়েও কোন প্রতিকার হচ্ছেনা।
তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহতো জানান,পুরাতন পুকুর খনন করতে পারবে এতে কোন নিষেধ নাই, পুকুরের মাটিও বিক্রি করতে পারবেন, শুধু কেউ কৃষি জমিতে নতুন পুকুর খনন করতে পারবেন না বলে জানান তিনি। বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসকের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন তানোর উপজেলার জনসচেতন জনসাধারণ গন।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *